ড্রাগন ফল কি | ড্রাগন ফলের উপকারিতা – Dragon Fruit in Bengali

ড্রাগন ফল কি | ড্রাগন ফলের উপকারিতা – Dragon Fruit in Bengali : বন্ধুরা আপনারা কি ড্রাগন ফলের উপকারিতা সম্পর্কে জানতে চান বা ড্রাগন ফল এর উপকারীতা কি এই বিষয়ে জান তে চান! তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন! কেন না, আজ আমি আপনাদের সাথে ড্রাগন ফল কি এবং এর উপকার কি এই বিষয়ে সম্পূর্ণ ধারণা দেবো. তাহলে চলুন আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক :-

ড্রাগন ফল কি ?- Dragon Fruit in Bengali

ড্রাগন ফলের উপকারিতা
ড্রাগন ফল কি

ড্রাগন ফল এক ধরনের ফণীমনসা (Cactus) প্রজাতির ফল। ডিম্বাকৃতির উজ্জ্বল গোলাপি রঙের এই ফলের নাম শুনলে কেমন জানি অদ্ভুত মনে হয়। এ আবার কেমন ফল। এটা কি আদৌ খাবার উপযোগী কিনা মনে সন্দেহ জাগে। কিন্তু এই ফল আমাদের দেশে অনেক জনপ্রিয়তা লাভ করছে। এই চাষ করে অনেকেই কোটিপতি হচ্ছে.

ড্রাগন ফলের ইংরেজি নাম কি ?

ড্রাগন ফলের ইংরেজী নাম – Pitaya.

ড্রাগন ফলের বৈজ্ঞানিক নাম কি ?

ড্রাগন ফলের বৈজ্ঞানিক নাম হলো – Hylocereus undatus.

ড্রাগন ফলের বিভিন্ন নাম গুলি কি কি ?

চীন -এর লোকেরা এটিকে ফায়ার ড্রাগন ফ্রুট এবং ড্রাগন পার্ল ফ্রুট বলে, থাইল্যান্ডে ড্রাগন ক্রিস্টাল, ভিয়েতনামে সুইট ড্রাগন, ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়াতে ড্রাগন ফ্রুট নামে পরিচিত। অন্যান্য দেশের দেশীয় নাম হলো স্ট্রবেরি নাশপাতি.

ড্রাগন গাছ ও ড্রাগন ফল দেখতে কেমন ?

ড্রাগন গাছ দেখতে একদম ক্যাকটাসের মতো। গাছ ১.৫ থেকে ২.৫ মিটার লম্বা হয়। গাছ দেখে অনেকেই একে চির সবুজ ক্যাকটাস বলেই মনে করেন। ডিম্বাকৃতির উজ্জ্বল গোলাপি রঙের এশিয়ার মানুষের কাছে এ ফল অনেক জনপ্রিয়, হালকা মিষ্টি-মিষ্টি। এই ফলের খোসা নরম এটা কাটলে ভিতরটা দেখতে লাল বা সাদা রঙের হয়ে থাকে এবং ফলের মধ্যে কালজিরার মতো ছোট ছোট নরম বীজ আছে। নরম শাঁস ও মিষ্ট গন্ধ যুক্ত গোলাপি বর্ণের এই ফল খেতে অনেক সুস্বাদু.

এই ফলের নাম ড্রাগন কেন ?

ড্রাগন ফল দেখতে খুবই সুন্দর ও অত্যন্ত আকর্ষণীয়। পাতাবিহীন এই ফলটি দেখতে ডিম্বাকার এবং উজ্জ্বল গোলাপি বা লাল রঙের। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো এই ফলের বাইরের খোসা দেখতে রূপকথার ড্রাগনের পিঠের মতো। এই রূপকথার ড্রাগনের মতো কিছুটা মিল থাকার জন্য একে ড্রাগন ফল বলে.

ড্রাগন ফুল কে রাতের রানী বলে কেন ?

ড্রাগন ফলের গাছ শুধুমাত্র রাতে ফুল দেয়। ফুল লম্বাটে সাদা ও হলুদ রঙের হয়। অনেকটা ‘Knight Queen’ ফুলের মত। এ কারণে ড্রাগন ফুলকে ‘রাতের রাণী’ নামে অভিহিত করা হয়ে থাকে । ড্রাগন ফলের গাছ লতানো Euphorbia গোত্রের ক্যাকটাসের মত কিন্তু এর কোন পাতা নেই। ফুল স্বপরাগায়িত; তবে মাছি, মৌমাছি ও পোকা-মাকড় এর পরাগায়ণ ত্বরানবিত করে এবং কৃত্রিম পরাগায়নও করা যেতে পারে।ড্রাগন ফুলকে বলা হয় ‘Moon Flower’ বা ‘Queen of the Night’। ফুল থেকে ডিম্বাকার ফল গঠিত হয়.

ড্রাগন ফল কোথায় পাওয়া যায় ?

এই ফল মূলত সেন্ট্রাল আমেরিকার প্রসিদ্ধ একটা ফল। সেন্ট্রাল আমেরিকাতে এ ফলটি ত্রয়োদশ শতাব্দীতে প্রবর্তন করা হয়। দক্ষিণ এশিয়া বিশেষ করে মালয়েশিয়াতে এ ফলের প্রবর্তন করা হয় বিংশ শতাব্দীর শেষে। তবে ভিয়েতনামে এ ফল সর্বাধিক বাণিজ্যিকভাবে চাষ করা হয়। বর্তমানে এ ফলটি দক্ষিণ আমেরিকা, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, দক্ষিণ চীন, মেক্সিকো, ইসরাইল, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ আমাদের দেশেও চাষ করা হচ্ছে.

ড্রাগন ফলের ব্যবহার – Uses of Dragon Fruit in Bengali

ড্রাগন ফল পাকা বা কাচা দুই ভাবে খাওয়া যায়। ড্রাগন ফল ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে খেলে ভালো লাগে। ফলকে লম্বালম্বিভাবে কেটে ২/৪ টুকরা করে চামচ দিয়ে কুরে এর শাঁস খাওয়া যায়। এ ছাড়াও খোসা ছাড়িয়ে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে কাঁটাচামচ দিয়ে খাওয়া যায়। এটা মুলত ফ্রুট সালাদ হিসেবে, মিল্ক শেক তৈরিতে,জুস তৈরির জন্যও ফলটি অত্যন্ত উপযোগী। এর ফুলও খাওয়া হয়.

ড্রাগন ফলের খাদ্যগুন 

১. প্রতি ১০০ গ্রাম ড্রাগন ফলের সাদা বা লাল অংশে ২১ মি.গ্রা. Vitamin C পাওয়া যায় যা দৈনিক ভিটামিন সি’র চাহিদার ৩৪ শতাংশ পূরণ করতে সাহায্য করে। ১০০ গ্রাম ড্রাগন ফলে যে পরিমাণ Vitamin C পাওয়া যায় তা একটি কমলার সমান বা তিনটি গাজরের চেয়ে বেশি Vitamin C সরবারহ করতে সক্ষম.

২. প্রতি ১০০ গ্রাম ড্রাগন ফলে ০.০৪ মি.গ্রা. Vitamin B1, ০.০৫ মি.গ্রা. Vitamin B2, ০.০১৬ মি.গ্রা Vitamin B3 এবং ২০.০৫ মি.গ্রা. Vitamin C পাওয়া যায়। ড্রাগন ফল আয়রনের ভালো উৎস। ১০০ গ্রাম ড্রাগন ফলে ১.৯ মি.গ্রা. আয়রন থাকে। এছাড়াও এতে Calcium থাকে ৮.৫ মি.গ্রা. এবং ফসফরাস থাকে ২২.৫ মি.গ্রা.

৩. প্রতি ১০০ গ্রাম ড্রাগন ফলে ৩ গ্রাম ফাইবার থাকে যা দৈনিক চাহিদার ১২ শতাংশ। ড্রাগন ফলের ফাইবার কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিকারক হিসেবে কাজ করে। প্রতি ১০০ গ্রাম ড্রাগন ফলে জলীয় শতাংশ থাকে ৮৭ গ্রাম, প্রোটিন ১.১ গ্রাম, ফ্যাট ০.৪ গ্রাম এবং কার্বোহাইড্রেট ১১.০ গ্রাম.

আমাদের শরীরে ড্রাগন ফলের উপকারিতা – Benefits of Dragon Fruit in Bengali

ড্রাগন ফলের উপকারিতা
ড্রাগন ফলের উপকারিতা

ড্রাগন ফল বা স্টবেরি পিয়ার একটি গ্রীষ্ম ঋতুর ফল যা তার উজ্জ্বল লাল খোসা এবং মিষ্টি ও বীজযুক্ত সাঁসের জন্য সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। চমৎকার আকৃতি এবং দারুণ সব পুষ্টিগুণে ভরপুর এই Superfood স্বাস্থ্য সচেতনদের নিত্যকার খাদ্যাভ্যাসে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে.

এই অদ্ভুত ফল উপভোগ করতে আপনাকে গ্রীষ্ম অঞ্চলে থাকতে হবে না। এটি তাজা বা ফ্রোজেন রূপে বিশ্বব্যাপী Supermarket গুলিতে পাওয়া যায় খুব সহজেই। বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত ড্রাগনের ফলের অবাক করা কয়েকটি স্বাস্থ্যগুণ এখানে দেওয়া হলো :-

১. পুষ্টিতে ভরপুর

ড্রাগন ফল Low Calorie যুক্ত তবে প্রয়োজনীয় Vitamin এবং খনিজ পদার্থে ভরপুর। এটিতে প্রচুর পরিমাণে Dietary Fiber রয়েছে। এক কাপ (২২৭ গ্রাম) ড্রাগনে কি পরিমাণ পুষ্টিগুণ রয়েছে সেগুলি এখানে দেওয়া হলো :-

  • ক্যালোরি: ১৩৬
  • প্রোটিন: ৩ গ্রাম
  • ফ্যাট: ০ গ্রাম
  • কার্বোহাইড্রেট: ২৯ গ্রাম
  • ফাইবার: ৭ গ্রাম
  • আয়রন: দৈনিক চাহিদার ৮%
  • ম্যাগনেসিয়াম: দৈনিক চাহিদার ১৮%
  • ভিটামিন সি: দৈনিক চাহিদার ৯%
  • ভিটামিন ই: দৈনিক চাহিদার ৪%

প্রয়োজনীয় পুষ্টির বাইরে, ড্রাগন ফল Polyphenols, Carotenoids এবং Betacanins এর মতো উপকারী উপাদানগুলিও সরবরাহ করে.

২. ফাইবারে সমৃদ্ধ

Dietary Fiber হলো Non-digestible Carbohydrates যার যথেষ্ট পরিমাণে স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মহিলাদের প্রতিদিন ২৫ গ্রাম এবং পুরুষদের ৩৮ গ্রাম ফাইবার গ্রহনের পরামর্শ দেয়। Antioxidant এর মতোই, Fiber সমৃদ্ধ খাবার ফাইবার পরিপূরকসমূহের থেকে বেশী উপকারী.

যদিও Fiber হজমে ভূমিকা রাখার জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত, কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে যে, এটি হৃদরোগ, Type 2 Diabetes এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে। যদিও আরও গবেষণা প্রয়োজন, কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে, High Fiber সমৃদ্ধ খাবার Colon Cancer এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারে.

এক কাপ বা ৭ গ্রাম পরিমাণ ড্রাগন ফল সকল ধরনের খাদ্যগুণের একটি দুর্দান্ত উৎস। এর মধ্যকার High Fiber আপনার দেহের দৈনিক চাহিদা পূরণে সহায়তা করবে। পেটের অস্বস্তি এড়াতে এবং হজম প্রক্রিয়া কে সহজ করতে প্রতিদিন High Dietary Fiber খাওয়ার অভ্যাস করুন এবং প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন.

৩. দুরারোগ্য ব্যাধি সারাতে সাহায্য করে

ড্রাগন ফল Antioxidant সমৃদ্ধ হওয়ায় অস্থির Free Radical Molecules যা কোষের ক্ষতি করে প্রদাহ বা রোগ সৃষ্টি করতে পারে সেগুলির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারে। Antioxidant গুলি Free Radical গুলিকে নিউট্রাল করে দেয় এবং এভাবে কোষের ক্ষতি এবং প্রদাহ রোধ করে.

গবেষণায় দেখা গেছে যে, নিত্যকার ডায়েটে Antioxidant সমৃদ্ধ খাবার থাকলে সেটা হৃদরোগ, Cancer, Diabetes এবং বাত এর মতো দীর্ঘস্থায়ী রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে.

ড্রাগন ফলে যে সব ধরণের শক্তিশালী Antioxidant রয়েছে :-

Battalions

Test-Tube সমীক্ষায় ইঙ্গিত পাওয়া যায় যে Battalion, Oxidative Stress এর বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারে এবং ক্যান্সারের কোষগুলিকে দমন করার ক্ষমতা রাখে.

Vitamin C

গবেষণায় দেখা গেছে যে Vitamin C গ্রহণ এবং ক্যান্সারের ঝুঁকির মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক আছে। ১২০,৮৫২ জনের একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে মাথা ও ঘাড়ের ক্যান্সারের নিম্ন হার Vitamin C এর উচ্চ মাত্রার সাথে যুক্ত.

Carotenoids

Beta Carotene এবং Lycopene হলো উদ্ভিদ রঙ্গক যা ড্রাগন ফলকে তার প্রাণবন্ত রঙ দেয়। Carotenoid সমৃদ্ধ খাবার ক্যান্সার এবং হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাসের সাথে যুক্ত.

ড্রাগন ফলের উপকারিতা
ড্রাগন ফল চাষ ছবি :- Collected

Antioxidant ওষুধ হিসাবে গ্রহণের থেকে প্রাকৃতিকভাবে খাবার খাওয়ার মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করলে সবচেয়ে ভালভাবে কাজ করে। প্রকৃতপক্ষে, Antioxidant পরিপূরকগুলিতে ক্ষতিকর প্রভাব থাকতে পারে এবং চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া সেগুলি গ্রহণ করা কখনোই উচিৎ নয়। তাইতো, Antioxidant এর চাহিদা পূরণে ড্রাগন ফল খাওয়া যেতে পারে.

৪. রক্তের Iron Level বাড়ায়

ড্রাগন ফল হলো কয়েকটি তাজা ফলগুলির মধ্যে একটি যা Iron সমৃদ্ধ। Iron আপনার সারা শরীর জুড়ে Oxygen পরিবহনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি খাদ্যকে শক্তিতে রূপান্তরিত করার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আমাদের অনেকের শরীরেই আইরনের ঘাটতি রয়েছে। প্রায় বিশ্বের ৩০% জনসংখ্যার আয়রনের ঘাটতি রয়েছে, যা বিশ্বব্যাপী পুষ্টির ঘাটতি তৈরি করে.

Iron ঘাটতি পূরণ করতে বিভিন্ন ধরণের আয়রন সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করা গুরুত্বপূর্ণ। আয়রনের সমৃদ্ধ উৎসগুলির মধ্যে আমিষ, মাছ, শিম, বাদাম ইত্যাদি রয়েছে।  ড্রাগন ফল Iron এর ঘাটতি পূরণের জন্য বিকল্প হতে পারে কারণ এতে দৈনিক চাহিদার ৮% Iron থাকে এবং এটিতে পর্যাপ্ত Vitamin C রয়েছে যা আপনার শরীরে আয়রন শোষণে সহায়তা করে.

৫. অন্ত্র সুরক্ষিত রাখে

আমাদের অন্ত্রে ৪০০ টিরও বেশি প্রজাতির Bacteria সহ প্রায় ১০০ ট্রিলিয়ন বিবিধ Micro Organisms রয়েছে। অনেক গবেষক বিশ্বাস করেন যে অণুজীবের এই সম্প্রদায়টি আপনার স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। মানব এবং প্রাণী উভয় সম্প্রদায়ের Asthma এবং হৃদরোগের মতো ব্যাধিগুলি আপনার অন্ত্রের ভারসাম্যহীনতার জন্য হয়ে থাকে.

ড্রাগন ফলে প্রাক-জৈবিক উপাদান রয়েছে, যেগুলি আপনার অন্ত্রের ভাল Bacteria ভারসাম্যকে উন্নত করতে পারে। Probiotic হলো একটি নির্দিষ্ট ধরণের Fiber যা আপনার অন্ত্রে স্বাস্থ্যকর Bacteria র পরিমাণ বৃদ্ধি করে। কিছু কিছু Fiber আপনার অন্ত্র সরাসরি হজম করতে পারেনা। তবে আপনার পেটের Bacteria সেগুলি হজম করতে পারে। তারা বৃদ্ধির জন্য জ্বালানী হিসাবে Fiber টি ব্যবহার করে থাকে.

ড্রাগন ফল মূলত দুটি স্বাস্থ্যকর Bacteria – Lactic Acid Bacteria এবং Bifido Bacteria বিস্তারে সহয়তা করে। । নিয়মিত Probiotic গ্রহণ করলে পাচনতন্ত্র ভালো থাকে এবং ডায়রিয়ায় সংক্রমণের ঝুঁকি হ্রাস পায়। কারণ, এটি ভাল ব্যাক্টেরিয়াগুলির বিকাশ ঘটায় এবং খারাপ ব্যাকটেরিয়ার পরিমাণ হ্রাস করে। ভ্রমণকারীদের একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, যারা ভ্রমণের আগে এবং ভ্রমণের সময় Probiotic গ্রহণ করেছিলেন তারা ডায়রিয়ার কম আক্রান্ত হয়েছিলেন.

কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, Probiotic গুলি পেটের প্রদাহ এবং Colon Cancer এর লক্ষণগুলিও কমিয়ে দিতে পারে। Probiotic নিয়ে গবেষণা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অনুকূল হলেও ড্রাগনের ফলের প্রাক-জৈবিক ক্রিয়াকলাপ সম্পর্কে গবেষণাটি টেস্ট-টিউব পরীক্ষার মধ্যে সীমাবদ্ধ। মানুষের অন্ত্রে এর প্রকৃত প্রভাব নির্ধারণের জন্য আরও গবেষণা প্রয়োজন.

৬. Immune System শক্তিশালী করে

ডায়েটের বিভিন্ন ফ্যাক্টরের উপর শরীরের রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা নির্ভর করে। ড্রাগন ফলের Vitamin C এবং Carotenoid গুলি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে এবং শ্বেত রক্তকণিকার ক্ষতিরোধের মাধ্যমে সংক্রমণ রোধ করতে পারে

আমাদের Immune System এর শ্বেত রক্ত ​​কণিকাগুলি ক্ষতিকারক পদার্থকে আক্রমণ করে এবং ধ্বংস করে।  শ্বেত রক্তকণিকাগুলি Free Radical দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। শক্তিশালী Antioxidant হিসাবে, Vitamin C এবং Carotenoid Free Radical গুলিকে নিরপেক্ষ করে দেয় এবং শ্বেত রক্তকণিকা সুরক্ষিত রাখে.

৭. ম্যাগনেসিয়াম উৎপন্ন করে

এক কাপ পরিমাণ ড্রাগন ফল দৈনিক চাহিদার ১৮% ম্যাগনেসিয়াম সরবরাহ করে। গড়ে আপনার দেহে ২৪ গ্রাম বা মোটামুটি এক আউন্স পরিমাণ ম্যাগনেসিয়াম থাকে। এটি আপাতদৃষ্টিতে সামান্য পরিমাণ মনে হলেও এই খনিজ পদার্থটি আপনার প্রতিটি কোষে উপস্থিত এবং আপনার দেহের মধ্যকার ৬০০ টিরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশ নেয়. যেমন :-

ড্রাগন ফল খাদ্যকে শক্তিতে রূপান্তর, পেশী সংকোচন, হাড়ের গঠন এবং এমনকি DNA তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় প্রতিক্রিয়াগুলিতে অংশ নেয়।  কিছু গবেষণা ইঙ্গিত দেয় যে, উচ্চ ম্যাগনেসিয়াম গ্রহণের ফলে হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি হ্রাস পেতে পারে। গবেষণাগুলি এটাও দেখায় যে, পর্যাপ্ত ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার হাড় গঠনে বিশেষ ভূমিকা রাখে.

ড্রাগন একটি সুস্বাদু গ্রীষ্মমন্ডলীয় ফল। এটি চমৎকার স্বাদযুক্ত এবং প্রয়োজনীয় পুষ্টি, প্রিবায়োটিক ফাইবার এবং উপকারী উদ্ভিদ কমপ্লেক্স সমৃদ্ধ। আপনি যদি আপনার ফ্রুট ডায়েটের ক্ষেত্রে কিছু বৈচিত্র্য যুক্ত করতে চান, তবে ড্রাগনের বিকল্প আর নেই। ড্রাগন বিবিধ পুষ্টিগুণে ভরপুর সুস্বাদু একটি ফল যা আপনার খাবার টেবিলকে আরো রঙীন করে তুলবে.

ড্রাগন ফল সম্পর্কিত কিছু Keywords

ড্রাগন ফল ড্রাগন ফল চাষ ড্রাগন ফল ও চাষ পদ্ধতি ড্রাগন ফল গাছের দাম ড্রাগন ফল গাছ ড্রাগন ফল কি ড্রাগন ফল গাছের ছবি ড্রাগন ফল এর উপকারিতা ড্রাগন ফল চাষের পদ্ধতি ড্রাগন ফল কিভাবে খায় ড্রাগন ফল খাওয়ার নিয়ম ড্রাগন ফল কোথায় পাওয়া যায় ড্রাগন ফল চাষের নিয়ম ড্রাগন ফল উপকারিতা ড্রাগন ফল কিভাবে চাষ করে ড্রাগন ফল উইকিপিডিয়া ড্রাগন ফল ড্রাগন ফল ছবি ড্রাগন ফল খেতে কেমন ড্রাগন ফল বাংলাদেশ ড্রাগন ফল এর ছবি dragon ড্রাগন ফল, ড্রাগন ফল পরিচিতি, Greeniculture খাদ্য হিসেবে ড্রাগন ফল অধিক পুষ্টিসম্পন্ন

আমাদের শেষ কথা

তাই বন্ধুরা, আমি আশা করি আপনি অবশ্যই একটি Article পছন্দ করেছেন (ড্রাগন ফল কি | ড্রাগন ফলের উপকারিতা – Dragon Fruit in Bengali)। আমি সর্বদা এই কামনা করি যে আপনি সর্বদা সঠিক তথ্য পান। এই পোস্টটি সম্পর্কে আপনার যদি কোনও সন্দেহ থাকে তবে আপনাকে অবশ্যই নীচে মন্তব্য করে আমাদের জানান। শেষ অবধি, যদি আপনি Article পছন্দ করেন (ড্রাগন ফলের উপকারিতা), তবে অবশ্যই Article টি সমস্ত Social Media Platforms এবং আপনার বন্ধুদের সাথে Share করুন।

Leave a Comment